খেলাধুলা

একাদশে ফিরছেন ইমরুল কায়েস

জাতীয় দলে যেন সুযোগ হচ্ছে না ইমরুল কায়েসের। শেষ বার সেই ২০১৮ সালে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে খেলেছিলেন ওয়ানডে সিরিজ, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। এরপর যেন আর দলে জায়গায়ই মিলছে না তার। তাকে সম্ভবত বলা যায় দুর্ভাগা একজন ক্রিকেটার।

কে জানে হয়ত বাংলাদেশের ইতিহাসের সবচেয়ে দুর্ভাগা ক্রিকেটারই কায়েস কি না? সবাই যখন পারফর্মেন্স এর জন্য বাদ পরে সেখানে তার বাদ পরার কারন টা বোধহয় একটু অবাক করার মতই।যেন ক্লাসে থাকা ব্যাক বেঞ্চারের মত। কেন শাস্তি পাচ্ছেন কখনও কখনও নিজেও জানেন না।

এই তো চলমান শ্রীলংকা সিরিজে ২৩ সদস্যের স্কোয়াডে ডাকা হয়েছিল ইমরুল কায়েস কে। ভাবা হচ্ছিল এবার হয়ত দলে থাকছেন, ভাগ্য ভালো হলে একাদশেও! কিন্তু একাদশ তো অনেক দুরের কথা, স্কোয়াডেও জায়গা হয় নি তার। এমনকি যেই স্ট্যান্ড বাই হিসেবে ৪ জন ক্রিকেটার নিয়েছে সেখানেও নেই ইমরুলের নাম। ৩য় ওয়ানডে দলে একজন বাড়ানো হয়েছে, সেখানেও নেই তার নাম।

হঠাৎ করে এভাবে ইমরুল হারিয়ে গেলই বা কেন? প্রশ্ন টা থেকেই যায়। আগে দেখা যেত যখনই কেউ ইঞ্জুরি তে পরতো, ডাক আসতো ইমরুলের। ইমরুল তো একবারই জানিয়েছিলোই যে তার বাড়িতে সবসময়ই একটা ব্যাগ গোছানো থাকে। মনে হয় এই বুঝি কারও ইঞ্জুরি তে ডাক এলো, ওমনি ছুটে গেল খেলার জন্য। এখন যেন সেটাও হচ্ছে না।

ন্যাশনাল টিমে ক্যাম্প করার পর ইমরুল এখন আছেই বা কোথায়? প্রশ্ন আসতেই পারে। তার উত্তর হচ্ছে আর কিছু দিন পর শুরু হতে যাচ্ছে ঢাকা প্রিমিয়ার লীগ বা ডিপিএল। যেখানে অংশ নিবেন ইমরুল। এখন সেখানেই প্রস্তুতির জন্য আছেন নিজের দলের সাথে।জাতীয় দলে ফিরতেও না পারলেও ডিপিএলে ঠিকি একাদশে ফিরছেন ইমরুল কায়েস।

শুধু কি ইমরুল? এক সময়ে জাতীয় দলে খেলা অনেক ক্রিকেটারই এখন হারিয়ে গেছে যাদের খোজ নেই বললেই চলে। শুভাগত হোম, সোহরাওয়ার্দী শুভ, এনামুল হক বিজয়, মেহেরাব হোসেন, মোহাম্মদ আশরাফুল। এরা এখন কোথায়? অবশ্য এদের অনেকেই এখন ঘরোয়া ক্রিকেটে ব্যস্ত থাকে। তাদের জীবনই যে ক্রিকেট কে ঘিরে। বাংলার ক্রিকেটে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র ছিল মোহাম্মদ আশরাফুল। অসংখ্য জয়ে অবদান রাখা আশরাফুল ফিক্সিং এর পর ফিরে এসে এখনই বা কোথায় আছেন? এটা প্রশ্ন আসতেই পারে। ফিরে এসে আর ধারাবাহিক হতে পারেন নি তিনি, তাই ভাগ্যও হয়নি তার জাতীয় দলে ফেরার।

তা নিয়ে আক্ষেপ প্রকাশ করেছে আশরাফুল। জানিয়েছে নিজের হতাশার কথা। বঙ্গবন্ধু টিটুয়েন্টি কাপের ব্যর্থতা নিয়েও কথা বলেছেন তিনি। তিনি বলেন ‘বঙ্গবন্ধু কাপ টা অতটা ভালো হয় নি। চেষ্টা করব শেখ জামালের হয়ে ভালো কিছু করার জন্য। টিম টা খুব চমৎকার একটা টিম। চেষ্টা করব ভালো কিছু ইনিংস উপহার দেয়ার জন্য।’

এত সব কিছুর পর তারা কি আবারও কখনও ফিরতে পারবে জাতীয় দলে? এই প্রশ্ন যেমন থেকে যায়, তেমনি থেকে যায় আগ্রহ। অন্তত আরও একবার হয়ত জাতীয় দলের জার্সি তে তাদের দেখতে চায় সবাই।

Back to top button