Uncategorized

গ্রে’ফতারের পর যেখানে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে হেফাজত নেতা মামুনুল হককে

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরের সেক্রেটারি মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গো’য়েন্দা পুলিশ-ডিবি। রবিবার (১৮

এপ্রিল) মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদ্রাসা থেকে তাকে গ্রে’ফ’তা’র করা হয়। গো’য়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গোয়েন্দা পুলিশের একাধিক টিম ও ডিএমপির তেজগাঁও বিভাগের যৌথ অ’ভিযা’নে মামুনুল হ’ককে গ্রে’ফতা’র করেছে। গ্রে’ফ’তারে’র পর তাকে মিন্টো রোডের গো’য়ে’ন্দা কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গত ৩ এপ্রিল সোনারগাঁওয়ের রয়েল রিসো’র্টকা’ণ্ডের পর থেকেই মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া

আরাবিয়া মাদ্রাসায় অবস্থান করছিলেন মামুনুল হক। ঘটনার পর থেকেই পুলিশ তাকে ন’জরদা’রির মধ্যে রেখেছিল। গো’য়ে’ন্দা পুলিশের কর্মকর্তারা জানান, মামুনুল হক ওই মাদ্রাসার দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষে অবস্থান করছিলেন। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে গোয়েন্দা পুলিশ ও তেজগাঁও বিভাগের শতাধিক পুলিশ প্রথমে ওই মাদ্রাসাটা ঘিরে ফে’লে। এ সময় মাদ্রাসার ভেতরে দেড় শ’তা’ধিক শিক্ষক ও শিক্ষার্থী অবস্থান করছিলেন। পুলিশের অ’ভিযা’নে প্রথমে তারা বাঁ’ধা দেওয়ার চেষ্টা করলেও অ’তিরি’ক্ত পুলিশ দেখে হাল ছেঁ’ড়ে দেন। পরে মামুনুল হককে দোতালার ওই ক’ক্ষ থেকে নিয়ে একটি মাইক্রোবাসে তোলা হয়। প্রথমে তাকে মিরপুর সড়কে পুলিশের তেজগাঁও ডিভিশনের ডিসি কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে তাকে মিন্টো রোডের ডিবি কা’র্যাল’য়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। গোয়েন্দা পুলিশের কর্মকর্তারা জানান, মামুনুল হকের বি’রু’দ্ধে ২০১৩ সালের ৫ মে হেফাজতের তা’ণ্ড’বের ঘ’টনা’য় দা’য়ের হওয়া এ’কা’ধিক মা’মলা রয়েছে। এছাড়া সাম্প্রতিক মোদিবি’রো’ধী আন্দোলনের সময়ও স’হিং’সতা করায় এ’কা’ধি’ক মা’ম’লায় মা’মুনুল হকের নাম রয়েছে। প্রথমে তাকে পুরনো মা’ম’লায় গ্রে’ফ’তার দেখিয়ে আ’দাল’তে পাঠানো হবে। পরে একে একে সব মাম’লায় গ্রে’ফতা’র দেখিয়ে রি’মা’ন্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

Related Articles

Back to top button