মহাকাশে অদ্ভুত প্রজাপতি

সম্প্রতি মহাকাশে দেখা গেছে অদ্ভুৎ আলোকোজ্জ্বল ‘প্রজাপতি’! আসলে এটা কী তা জানালেন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা। জেনে নিন সে সম্পর্কে।

সম্প্রতি এমনই অদ্ভুৎ দৃশ্য ধ’রা পড়ল জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের টেলিস্কো'প ে। মেঘমুক্ত আকাশে সৌরজগতের ছায়াপথ মিল্কিওয়েতে আলোকোজ্জ্বল, বর্ণময় একটি ‘প্রজাপতি’র মতো আকারের কিছু একটা জিনিস টেলিস্কো'প ের সাহায্যে দেখতে পান জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা।
সম্প্রতি এমনই অদ্ভুৎ দৃশ্য ধ’রা পড়ল জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের টেলিস্কো'প ে। মেঘমুক্ত আকাশে সৌরজগতের ছায়াপথ মিল্কিওয়েতে আলোকোজ্জ্বল, বর্ণময় একটি ‘প্রজাপতি’র মতো আকারের কিছু একটা জিনিস টেলিস্কো'প ের সাহায্যে দেখতে পান জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা।

প্রথমে বিজ্ঞানীর এই দৃশ্য দেখে অবাকই হয়েছিলেন।
প্রথমে বিজ্ঞানীর এই দৃশ্য দেখে অবাকই হয়েছিলেন।

ইউরোপীয় সাউদার্ন অবজারভেটরি টেলিস্কো'প ে ধ’রা পড়েছে এই অদ্ভুৎ সুন্দর দৃশ্য। চোখ জুড়িয়ে যাওয়ার মতো এই দৃশ্যটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ারও করেছেন চিলির মহাকাশ বিজ্ঞানীরা।
ইউরোপীয় সাউদার্ন অবজারভেটরি টেলিস্কো'প ে ধ’রা পড়েছে এই অদ্ভুৎ সুন্দর দৃশ্য। চোখ জুড়িয়ে যাওয়ার মতো এই দৃশ্যটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ারও করেছেন চিলির মহাকাশ বিজ্ঞানীরা।

এই ছবিতে যে আলোকোজ্জ্বল, বর্ণময় একটি ‘প্রজাপতি’ ধ’রা পড়েছে, সেটি আসলে নীহারিকাদের মাঝে মৃ'ত তারার থেকে নির্গত হিলিয়াম, হাইড্রোজেনের মতো বিভিন্ন গ্যাসের সংমিশ্রণে তৈরি হওয়া একটি আলোকপিণ্ড!
এই ছবিতে যে আলোকোজ্জ্বল, বর্ণময় একটি ‘প্রজাপতি’ ধ’রা পড়েছে, সেটি আসলে নীহারিকাদের মাঝে মৃ'ত তারার থেকে নির্গত হিলিয়াম, হাইড্রোজেনের মতো বিভিন্ন গ্যাসের সংমিশ্রণে তৈরি হওয়া একটি আলোকপিণ্ড!

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, প্রায় ৬,৫০০ আলোকবর্ষ দূরে অবস্থিত মিল্কিওয়ের এমন ছবি তারা এর আগে কখনও দেখেননি। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, ওই আলোকপিণ্ডরে চারপাশে লালচে বর্ণের উজ্জ্বল আলো হাইড্রোজেন গ্যাসের ফলে তৈরি হয়েছে। এই গ্যাসের বলয়টির তাপমাত্রা অন্তত ১৮,০০০ ডিগ্রি ফারেনহাইটে পৌঁছে গিয়েছে বলে অনুমান বিজ্ঞানীদের।
বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, প্রায় ৬,৫০০ আলোকবর্ষ দূরে অবস্থিত মিল্কিওয়ের এমন ছবি তারা এর আগে কখনও দেখেননি। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, ওই আলোকপিণ্ডরে চারপাশে লালচে বর্ণের উজ্জ্বল আলো হাইড্রোজেন গ্যাসের ফলে তৈরি হয়েছে। এই গ্যাসের বলয়টির তাপমাত্রা অন্তত ১৮,০০০ ডিগ্রি ফারেনহাইটে পৌঁছে গিয়েছে বলে অনুমান বিজ্ঞানীদের।